জার্মানিতে দক্ষিণ এশিয়ার খবরকে খুবই গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে
ডয়চে ভেলে, সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৩


ইদানিং ডয়চে ভেলের ওয়েবসাইটে দক্ষিণ এশিয়ার সাম্প্রতিক খবরাখবর গুরুত্বের সাথে স্থান পাচ্ছে৷ বাংলাদেশের উত্তপ্ত রাজনীতি জামায়াত-শিবির ও সাংবাদিকের উপর পুলিশের গুলি লেগে নিহত আহত হচ্ছে, এবিষয়ে নিরপেক্ষ সংবাদ জানতে চাই৷
- লিখেছেন ডা.এসএমএ হান্নান, পাছশুয়াইল রেডিও শ্রোতা ক্লাব, হরিপুর, চাটমোহর, পাবনা থেকে৷
বাংলা ভাষার মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন – অসাধারণ প্রয়াস৷ এই প্রতিবেদনে এক সৃজনশিলতার ভাব ফুটে উঠলেও একবিংশ শতাব্দীতে কেন শুধু ধর্মকে নিয়ে এই উপমহাদেশে মারামারি, মাতামাতি, হানাহানি৷ ধর্ম বজায় রাখাই হচ্ছে ধর্মের প্রতি সম্মান জানানো৷ ধর্ম কোন ব্যক্তি-বিশেষের রুজি রোজগারের ব্যবস্থা করতে পারবে না৷
মনের স্বচ্ছতা, গভীরতা, পবিত্রতা ও প্রত্যেকে প্রত্যেকের প্রতি সহমর্মিতার ভাব প্রকাশের জন্য ধর্মের সৃষ্টি, এই ভাব প্রকাশ লেখায় সৃষ্টি করা যায় না? আর যারা ২১শে ফেব্রুয়ারিকে ভাইদের রক্তে রাঙিয়ে দিতে সাহায্য করেছিল, তাদের সুষ্ঠু বিচারের দরকার৷ কোথাও যেন একটা ফারাক থেকে যাচ্ছে৷
যদিও বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে, তবু আমার মনে হয় ধর্মকে ধর্মের স্থানে রেখে দিয়ে বাঙালিরা সৃজনশীলতার ভাব প্রকাশ করি, বিশ্বের দরবারে বাঙালি মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে৷ যদিও জানি এ লেখা প্রকাশিত হবে না, মনের ভাব জানালাম৷ আপনাদের শুভ কামনায়, সুহৃৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, জৌগ্রাম, বর্ধমান থেকে লিখেছেন৷
জার্মান চ্যান্সেলর ম্যার্কেলের তুরস্ক সফর সংক্রান্ত প্রতিবেদন থেকে এই সফরের উদ্দেশ্য, দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সম্পর্ক, তুরস্কের ইউনিয়নে যোগদান সম্পর্কে আলাপ আলোচনা, সাইপ্রাসের প্রতি তুরস্কের মনোভাব, সন্ত্রাস দমনে দুই দেশের যৌথ প্রয়াস, এই সমস্ত তথ্যগুলি বিস্তারিত ভাবে জানতে পারলাম৷ যেখানে জার্মানদের প্রায় দুই তৃতীয়াংশ তুরস্কের ইউরোপীয় ইউনিয়নে যোগদানের বিরোধী, সেই অবস্থানে চ্যান্সেলর ম্যার্কেলের তুরস্ক সফর কতখানি সাফল্যের বার্তা বয়ে আনবে তা নিয়ে কিছুটা হলেও সংশয় থেকেই যাচ্ছে৷ মনে করেন সুভাষ চক্রবর্তী৷
ধন্যবাদ৷ আবারও লিখবেন বন্ধুরা, অপেক্ষায় রইলাম আমরা৷
সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার


লিঙ্ক