‘ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলা – ২০১৬’ এই মেলায় এবছর ১০০ টি দেশর ৭.৩০০ টি প্রকাশনা সংস্থা
Mir Monaz Haque, শনিবার, অক্টোবর ২২, ২০১৬


১৯ অক্টবর: আজ থেকে শুরু হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বইমেলা ‘ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলা’র ৬৮তম আসরের। বিশাল এই বইমেলা জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট শহরে স্থানীয় সময় সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে এই মেলা চলবে আগামী ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত। মাত্র ৫ দিনের এই মেলায় এবছর ৭.৩০০ টি প্রকাশনা সংস্থা পৃথিবীর প্রায় ১০০ টি দেশ থেকে এসে অংগ্রহন করছেন যেখানে এই ৫ দিনে প্রায় ৩ লক্ষ্য দর্শক ৫ লক্ষ্য বর্গ মিটার আয়তনের ফ্রাঙ্কফুর্ট মেসের ১২ টি বিশাল বিশাল হলে পদচারোনা করবেন, যেখানে শুধু লক্ষ্য লক্ষ্য বই সাজানো থাকে তা নয়, বই প্রকাশনার সকল রকমের টেকনোলজি সম্বলিত ছাপার ইতিহাসের আদি থেকে অন্ত এবং আধুনিক প্রযুক্তি, সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার ও লেখকদের উপস্থিতিতে ৩ হাজার ইভেন্টস ও ৯ হাজার সাংবাদিকের উপস্থিতি এই ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলার বিশালত্ব উল্লেখযোগ্য।
গতবছরের ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় যেমন সালমান রুশদিকে প্রধান আলোচচক হিসেবে দাওয়াত করে, ইরানের বদনাম কুড়িয়েছিল ও ইরানের অনুপস্থিতি ছিল, এবার তাই ৮০ বৎসরের প্রতিথযশা ব্রিটিশ পেইন্টার ও লেখক ডেভিড হ্যাকনি কে দাওয়াতী অতিথি হিসেবে পেয়ে মেলা কমিটি দারুন প্রশংসিত হয়েছে।
এছাড়াও মেলায় রাজনীতি নিয়ে আলোচনা করতে আসার কথা রয়েছে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট মার্টিন শুলজ। এবারের মেলায় বন্ধুদেশ হিসেবে ফ্লন্ডোর্স, ডাচ-ভাষী বেলজিয়ামের উত্তর অংশ এবং নেদারল্যান্ডসকে ‘গেস্ট অফ অনার’ করা হয়েছে। এই ৬৮ বছরের ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলার ইতিহাসে ভারত কে তিন বার বন্ধুরাষ্ট্র হিসেবে পেয়েছে ফ্রাঙ্কফুর্ট।
এবছরের মেলায় বাংলাদেশ থেকে একাধিক প্রকাশনী সংস্থা ফ্রাঙ্কফুর্টে অংশ নিয়েছে এর মধ্যে ঐতিহ্যবাহী প্রকাশনা সংস্থা মাওলা ব্রাদার্সের প্রকাশক আহমেদ মাহমুদুল হকও রয়েছেন। মেলার প্রথমদিনে বাংলাদেশ স্টলে একটি ইভেন্টে লেখক অধ্যাপক মনিরুল ইসলাম, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের প্রথম সচিব মিসেস মমতাজ, মাননীয় রাষ্ট্রদূত জনাব মোহাম্মদ আলী সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর স্পেশাল সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল কেও দেখা গেছে। (ছবি: ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলা প্রেস)। - মোনাজ হক

Link